কৌটিল্য/চাণক্যের নীতিশাস্ত্র-২

chanakya_artistic_depictionপ্রথম পর্ব
** একজন মানুষের আচার আচরণ দেখে তার অধঃপতিত অবস্থান উপলব্ধি করা যায়। দেশ সম্পর্কে তার মনোভাব জানা যায় ভাষাগত উচ্চারণে। বন্ধুত্ব পরিমাপ করা যায় আবেগ ও আন্তরিকতার নিরিখে এবং কারো খাদ্য গ্রহনের সক্ষমতা নিরপণ করা যায় শরীর দেখে।

** কোনো কাজের বিষয়ে তুমি যা ভেবে রেখেছ তা প্রকাশ করবে না। সারগর্ভ পরামর্শ থাকলেও বিষয়টি গোপন রেখে বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে নিজেই প্রয়োগ করবে

** এমনকি যদি বিষের মধ্য থেকেও মধু আহরণ করতে হয়, তবে তাই করো। স্বর্ণ যদি আবর্জনা বা বিষ্ঠাতে নিপতিত হয় তবে সেখান থেকে উঠিয়ে ধুয়ে মুছে ব্যবহার যোগ্য করে নাও। অনুরূপভাবে যদি নীচু শ্রেনীতে জন্মগ্রহনকারীদের কাছেও সর্বোচ্চ বিদ্যার্জন করতে হয়, তবে তাই করো এবং বিতর্কিত পরিবারে জন্মগ্রহণকারী কোন নারীর কাছ থেকে জ্ঞান-গরিমা অর্জন করতে হয়, তবে তাও নিঃসঙ্কচিত্তে করতে পারো।

** যে ব্যক্তি সম্মুখে মিঠা বুলি আওড়ায় আর পশ্চাতে বিনাশের চেষ্টা করে তাকে এড়িয়ে চলো। কারণ, সে ব্যক্তির বৈশিষ্ট্য বিষপূর্ণ পাত্রের উপরিভাগে দুধের আস্তরণের মতো।
** অধ্যয়নের মধ্যেই নিহিত থাকে একজন ব্রাহ্মণের সক্ষমতা। একজন রাজার শক্তি সামর্থ তার সেনাবাহিনী। একজন বৈশ্যের সক্ষমতা নির্নায়ক তার সম্পদ এবং কাজ বা সেবা প্রদানের মানসিকতার উপর নির্ভর করে একজন শূদ্রের সক্ষমতা।

** জ্ঞানী লোকেরা অবশ্যই স্বীয় সন্তানদের নৈতিকতার বহুমাত্রিক পথে চালিত করবে। যে সন্তানেরা নীতি শাস্ত্রের জ্ঞান গরিমার আলোকে সদাচারণ করবে, তারা তাদের পরিবারের জন্য বয়ে আনবে গৌরব।

** দেখতে মানুষের মতো হলেও দু’পা বিশিষ্ট নির্বোধ পশুর সহচার্যে কখনো যাবেনা। কারণ ওরা ধারালো শব্দের দ্বারা অদৃশ্য কাঁটার সুচাগ্র দিয়ে হৃদপিন্ড বিদীর্ণ করে থাকে।

** সৌন্দর্য এবং অভিন্ন যৌবন নিয়ে বনেদি পরিবারে জন্মগ্রহন সত্ত্বেও, শিক্ষাগ্রহণ ব্যাতিরেকে তাদের জীবন হয়ে ওঠে অর্থহীন সুগন্ধিশূন্য পলাশ ফুলের মতো।
** অরণ্যস্থ একটি বৃক্ষের পরিস্ফুটিত ফুলের মিষ্টি গন্ধই পুরো অরণ্য সুবাসিত হয়। একই ভাবে একটি পরিবারের একজন গুণবান ছেলের সুবাদেই পুরো পরিবার বিখ্যাত হয়ে ওঠে।

** একই মানসিকতার লোকদের বন্ধুত্ব উদ্ভাসিত হয়। রাজার অধীনস্থ চাকুরি মর্যাদাপূর্ণ বলে পরিগণিত হয়। সাধারণের সাথে সেবামূলক আচরণই প্রশংসনীয় এবং একজন সুন্দরী নারী নিজের বাড়িতেই নিরাপদ।

** এই জগতে কোন পরিবার আছে, যে পরিবারে কলঙ্ক নেই? কে রোগবালাই এবং দুঃখ বেদনা মুক্ত? কে সারাজীবন ধরে সুখি?
** অতিমাত্রায় প্রশ্রয় ও আদরের ফলে সন্তানদের মধ্যে বহুমাত্রিক বদ অভ্যাসের উন্মেষ ঘটে এবং কঠোরতার কারনে বহুমুখী সদগুনের বিকাশ ঘটে। সুতরাং সন্তানদেরকে এবং ছাত্রদেরকে প্রহার করতে হবে, কখনো প্রশ্রয় দেয়া চলবেনা। ওদের উপর প্রয়োজনে বেত ইস্তেমাল করতে হবে।

** দুর্বৃত্ত এবং সর্প, এই দুইয়ের মধ্য সর্পই তুলনামূলকভাবে ভালো। কারণ হত্যা করার জন্য সে একবারই আক্রমণ করে থাকে, কিন্ত দুর্বৃত্ত প্রতি পদে পদে হত্যায় উন্মত্ত হয়।

তথ্যসূত্রঃ এবং কৌটিল্যের নীতিশাস্ত্র – মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: